সরে দাঁড়ালেন বিচারপতি, মমতাকে জরিমানা ৫ লাখ রুপি

0
74

সর্বশেষ আপডেট জুলাই ৭, ২০২১ | ইমরান

কলকাতা হাইকোর্টে নন্দীগ্রাম বিধানসভা কেন্দ্রে ভোট পুনর্গণনার আবেদন জানিয়ে করা মামলা থেকে সরে দাঁড়ালেন বিচারপতি কৌশিক চন্দ। এদিকে বিচারপতি চন্দকে এই মামলা থেকে সরানোর দাবি জানানোয় তৃণমূল প্রধান মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে পাঁচ লাখ টাকা জরিমানা দিতে বলেছেন কলকাতা হাইকোর্ট। বিচার ব্যবস্থাকে কলুষিত করার দায়ে এই জরিমানা ধার্য করা হয়েছে মমতার বিরুদ্ধে। জরিমানার এই অর্থ রাজ্য বার কাউন্সিলকে দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। পরবর্তীতে তা কোভিড চিকিৎসায় ব্যবহার করা হবে।

এর আগে বিজেপির সঙ্গে যোগসাজশের অভিযোগ তুলে কৌশিক চন্দকে মামলা থেকে সরানোর আবেদন জানিয়েছিল তৃণমূল। সেই আবেদন খারিজ হয়ে যায় আদালতে। তবে ক্রমাগত যেভাবে তৃণমূল নেতা-নেত্রীরা ব্যক্তিগতভাবে বিচারপতিকে আক্রমণ করছিলেন, তার প্রেক্ষিতে শেষ পর্যন্ত মামলা থেকে সরে দাঁড়ালেন বিচারপতি কৌশিক চন্দ।

আইনজীবী থাকাকালীন বিজেপির হয়ে একাধিক মামলা লড়েছিলেন বিচারপতি কৌশিক চন্দ। সেই কৌশিক চন্দের বেঞ্চেই নন্দীগ্রাম বিধানসভা কেন্দ্রের মামলা শুনানির জন্য যায়। যা নিয়ে তৃণমূলের তরফে প্রবল আপত্তি জানানো হয়। বলা হয়- বিচারপতি চন্দ এই মামলার শুনানি করলে, সেখানে নিরপেক্ষতা নিয়ে প্রশ্ন থেকে যাবে। কারণ, মামলাকারী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিপক্ষে যিনি রয়েছেন, সেই শুভেন্দু অধিকারী বিজেপি নেতা। আর তার সঙ্গে ভালো সম্পর্ক রয়েছে বিচারপতির। এমনকি বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের সঙ্গে কৌশিক চন্দর একটি ছবি পোস্ট করে এ নিয়ে প্রশ্ন তোলেন তৃণমূলের রাজ্য সম্পাদক কুণাল ঘোষ।

এর পরই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তার আইনজীবী সঞ্জয় বসুর মাধ্যমে বিচারপতি কৌশিক চন্দকে এই মামলা থেকে সরে যেতে আবেদন করেছিলেন। এই আবেদনের প্রেক্ষিতে একজন বিচারপতির নিরপেক্ষতা নিয়ে প্রশ্ন তোলা হয় বলে জানান বিচারপতি কৌশিক চন্দ। আর তাই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ৫ লাখ রুপি জরিমানা করা হয়েছে।

পূর্ববর্তী সংবাদভারতের স্বাস্থ্য-শিক্ষাসহ ১১ মন্ত্রীর পদত্যাগ
পরবর্তী সংবাদযেভাবে দেখবেন ইংল্যান্ড-ডেনমার্ক সেমিফাইনাল

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন!
এখানে আপনার নাম লিখুন