কটিয়াদীতে ছাত্রী টুনিকে ধর্ষণের পর হত্যা মামলার প্রধান আসামী গ্রেপ্তার

0
70

সর্বশেষ আপডেট জুলাই ১৩, ২০২১ | ইমরান

বদরুল আলম নাঈম, কটিয়াদী :

কিশোরগঞ্জের কটিয়াদীতে তৃতীয় শ্রেণির ছাত্রী সাদিয়া আক্তার টুনিকে ধর্ষণের পর শ্বাসরোধে হত্যা মামলার প্রধান আসামী নজরুল ইসলামকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সভার আশুলিয়া থেকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)। মঙ্গলবার ভোরে গ্রেপ্তারের পর সকাল ১০টার দিকে ঘটনাস্থল কটিয়াদী উপজেলার লোহাজুরীতে নিয়ে আছে। গ্রেপ্তারকৃত নজরুল ইসলাম একই গ্রামের ছমুর মিয়ার ছেলে।
মঙ্গলবার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সাদ্দাম হোসেনের কাছে ১৬৪ ধারায় নজরুল ইসলাম স্বীকারোক্তি মূলক জবানবন্দি প্রদান করে। কিশোরগঞ্জ পিবিআই পুলিশ সুপার মো. শাহাদাত হোসেন (পিপিএম) বিষয়টি নিশ্চত করেছেন।
এদিকে পিবিআই আসামী নজরুল ইসলামকে নিয়ে ঘটনাস্থল লোহাজুরী এলাকা ত্যাগ করার সময় এলাকার উত্তেজিত জনতা বিক্ষোভ মিছিল করে তার দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তি দাবী করেন। একপর্যায়ে উত্তেজিত জনতা তার বাড়িটি গুড়িয়ে দিয়ে আগুণ লাগিয়ে দেয়। লোহাজুরী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি নুরুল ইসলাম বিএসসি জানান, নজরুল একজন মাদকসেবী ও জুয়ারী। পিতা মাতা ভাই বোন কারো সাথেই তার সম্পর্ক ভাল নেই। পারিবারিক দ্বন্দ্বের কারণে তার পিতা ছমুর মিয়া ছেলে নজরুলকে একবার পুলিশে দিয়েছিল।
উল্লেখ্য, গত ২ জুলাই শুক্রবার সকালে মাছ ধরতে সাদিয়া আক্তার টুনি পিতার সাথে নদীতে যায়। কিছুক্ষণ পর বৃষ্টি শুরু হলে মেয়েকে বাড়ি চলে যেতে বলেন। বাড়ি ফেরার পথে টুনি নিখোঁজ হয়। পরে ১১টার দিকে তার হা-পা বাধা, গলায় ওড়না প্যাচানো মৃত দেহ পাটক্ষেত থেকে উদ্ধার করে।
এ ঘটনায় নিহত শিশু টুনির পিতা চুন্নু মিয়া বাদী হয়ে অজ্ঞাত নামা ব্যক্তিদের আসামী করে কটিয়াদী মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। গত ১১ জুলাই মামলাটি তদন্তের জন্য পিবিআইকে দায়িত্ব দেয়া হয়।

পূর্ববর্তী সংবাদভৈরবে ভেজাল খাদ্য উৎপাদন করায় ভ্র্যাম্যমাণ আদালতে জরিমানা
পরবর্তী সংবাদমাহমুদউল্লাহকে আবেগী বিদায় মুশফিকদের

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন!
এখানে আপনার নাম লিখুন