আবারো কাঠালিয়া উপজেলার জনমনের মনি কোঠায় স্থান পেয়েছেন-কাওসার আহমেদ জেনিভ

0
114

সর্বশেষ আপডেট অক্টোবর ২০, ২০২১ | ইমরান

বিশেষ প্রতিনিধি:

দ্বিতীয় বারের মতো বিনা প্রতিদ্বন্ধীতায় ঝালকাঠির কাঠালিয়া উপজেলা বি.আর.ডিবি চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়ে উপজেলার সর্বস্তরের মানুষের মনি কোঠায় স্থান পেয়েছেন মো: কাওসার আহমেদ জেনিভ সিকদার। তিনি উপজেলার অধিকাংশ গরীব অসহায় ও দু:খী মানুষের পাশে থেকে বিশেষ করে করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯)এ ঘর বন্দি থাকা খেটে খাওয়া দিন-মজুর তাদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে রাতের অন্ধকারে বর্তমান সরকার জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে ত্রাণ সামগ্রী দেয়ার কাজে বিশেষ অবদান রেখেছেন।

তিনি কাঠালিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও বীর মুক্তিযোদ্ধা মো: হাবিবুর রহমান উজির সিকদার এর ছেলে। তিনি ২০০১ সালে কাঠালিয়া মডেল সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ে থেকে মাধ্যমিক পাশ করে। এর পর রাষ্ট্রবিজ্ঞানে বি.এস.এস (অনার্স) এম.এস.এস (মাষ্টার্স) ডিগ্রী অর্জন করেন।

রাজনৈতিক জীবনেও তার অবদান কম নয়। ২০০২ সালে তফাজ্জল হোসেন মানিক মিয়ার ডিগ্রী কলেজ শাখার ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন। পরে ২০০৫ সালে কাঠালিয়া উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন ও ২০১৪ সালে কাঠালিয়া উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ছিলেন এবং ২০১৯ সালে কাঠালিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক পদে নির্বাচিত হয়ে বর্তমানে দায়িত্বরত অবস্থায় আছেন। শুধু তাই নয়, মানুষ গড়ার কারিগর হিসেবেও পিছিয়ে নন তিনি। তিনি কাঠালিয়া পাইলট বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয় স্কুল এন্ড কলেজে লেকচারার পদে শিক্ষকতার দায়িত্ব পালন করছেন।

এ বিষয় মো: কাওসার আহমেদ বলেন, বাবার আদর্শে আদর্শিত হয়ে, বাবার হাত ধরে রাজনীতির মঞ্চে যাওয়া আসা করে, কবে কখন ও কিভাবে জয়বাংলা বলে জয় বাংলা শ্লোগানে সামিল হয়েছি তা সঠিক মনে নেই। সেই থেকে রাজনৈতিক পথচলা শুরু আজও চলছে। রাজনীতিতে অনেক কিছু পেয়েছি। ২০০২ সালে তফাজ্জল হোসেন মানিক মিয়ার ডিগ্রী কলেজ শাখার ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হই। এর ২০০৫ সালে কাঠালিয়া উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করি ও ২০১৪ সালে কাঠালিয়া উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক হিসেবে নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালন করেছি এবং ২০১৯ সালে কাঠালিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক পদে নির্বাচিত হয়ে বঙ্গবন্ধুর আদর্শে আদর্শিত হয়ে দায়িত্ব পালন করছি। আর ভবিষ্যতেও আমার শেষ রক্তবিন্দু দিয়ে বঙ্গবন্দুর আদর্শের সৈনিক হয়ে বেঁচে থাকতে এবং দেশ ও গরীব অসহায় মানুষের পাশে থাকতে চাই।

পূর্ববর্তী সংবাদবাজিতপুরে নব-নির্বাচিত উপজেলা চেয়ারম্যানকে ফুল বরন ও দায়িত্ব গ্রহণ
পরবর্তী সংবাদকিশোরগঞ্জ জেলা সদরে আ’লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী ৮৫জন

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন!
এখানে আপনার নাম লিখুন